নির্বাচনের প্রতি ভোটারদের আগ্রহ নেই: পীর চরমোনাই

অনলাইন ডেস্ক : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর চরমোনাই বলেছেন, নির্বাচন কমিশনের খামখেয়ালীর কারণে নির্বাচনের প্রতি ভোটারদের আগ্রহ নেই। নির্বাচন কমিশনের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ সাংবিধানিক পদটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটারহীন ও নামমাত্র ভোটার উপস্থিতি প্রমাণ করে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের উপর ভোটারদের কোন আস্থা নাই।
এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন। বিবৃতিতে আরো বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর ভোটারবিহীন একদলীয় প্রহসনের নির্বাচনের পর থেকে দেশে যতগুলো নির্বাচন হয়েছে এর কোন একটি নির্বাচনও সত্যিকার অর্থে সুষ্ঠু নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হয়নি। প্রমাণিত হলো জাতি এই কমিশনকে প্রত্যাখ্যান করেছে।
পীর চরমোনাই বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, পৌরসভা নির্বাচন সর্বশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ সবগুলোতেই ক্ষমতাসীন সরকারী দল ও তাদের সেবাদাস নির্বাচন কমিশন যৌথভাবে একতরফা ও একদলীয় ভোটহীন, ভোটারবহীন, প্রহসনের নির্বাচনের নামে জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নিয়েছিল। ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ইতিহাসে এক কলঙ্কময় দিন। প্রশ্নবিদ্ধ এ নির্বাচন বাংলাদেশের নির্বাচনের ইতিহাসে কলঙ্কময় অধ্যায় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আছে।
পীর সাহেব আরো বলেন, ভোটের নামে জনগণের সঙ্গে যে প্রতারণা বর্তমান সময়ে চলছে তা সভ্য দুনিয়ায় বিরল। এ অবস্থা চলতে পারে না। আমরা এই সর্বনাশা ভোটের তামাশার পরিবর্তন চাই। আমরা চাই জনগণ তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নিরাপদে ও স্বাচ্ছন্দে ভোটাধিকার প্রয়োগ করুক। বর্তমান ক্ষমতাসীনরা জনগণের ভোটাধিকার কেড়ে নেয়ার যে পাপ করেছে এর পরিণতি একদিন তাদের ভোগ করতে হবে। বর্তমান নির্লজ্জ নির্বাচন কমিশনকেও কেউ ক্ষমা করবে না।