আগামী জুন মাসে পদ্মা সেতু দিয়ে ট্রেন চলবে : রেলমন্ত্রী

ফাইল ছবি। সংগৃহিত।

সারাবিশ্বডটকম নিউজ ডেস্ক: রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, আমরা আশা করছি, আগামী জুন মাসে পদ্মা সেতু দিয়ে ঢাকা থেকে ভাঙা পর্যন্ত রেল যোগাযোগ স্থাপন করা হবে। এর ফলে তিনটি নতুন জেলা মাদারীপুর, শরিয়তপুর ও রাজবাড়ী রেল যোগাযোগের আওতায় আসবে।

এছাড়া আখাউড়া থেকে আগরতলা পর্যন্ত রেলপথও আগামী জুনে চালু করা সম্ভব হবে। পর্যায়ক্রমে ঢাকা থেকে কক্সবাজার, রামু হয়ে গুনদুম পর্যন্ত রেলও চলতি বছরের জুনে চলাচল করবে, সে লক্ষ্যে কাজ এগিয়ে চলছে। এসব রেলপথ চালু হলে জিডিপি এক শতাংশ বাড়বে বলে জানান তিনি।ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু’র সভাপতিত্বে সোমবার সংসদের ২১তম অধিবেশনের তৃতীয় দিনের বৈঠকে  রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

রেলমন্ত্রী বলেন, খুলানা থেকে মংলা পোর্ট, আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। খুলনা থেকে মংলা পর্যন্ত রেলপথ চালু হলে সরাসরি ঢাকা থেকে মংলা বন্দর পর্যন্ত রেলপথ সংযুক্ত হবে।

এসময় বাংলাদেশ রেলওয়ের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের তথ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশের দক্ষিণ পশ্চিম ও উত্তরাঞ্চলের সঙ্গে রেল যোগাযোগ দ্রুত শেষ করা ও ওইসব এলাকায় উন্নয়নের লক্ষ্যে পদ্মা ব্রিজ রেল সংযোগ ও দ্বিতীয় বঙ্গবন্ধু সেতুর কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। এর ফলে তিনটি নতুন জেলায় রেল সংযুক্ত হবে।

রেলমন্ত্রী বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আধুনিকায়ন ও যুগোপযোগী করার ওপর বর্তমান সরকার অগ্রাধিকার দিয়েছে। ৩০ বছর মেয়াদী উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা রেলওয়ে মাস্টার প্লান সরকারের নির্বাচনী ইস্তেহারে স্থান পেয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর ডাকে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়ি। কেননা এদেশে আমাদের ভোটাধিকার ছিল না, অর্থনৈতিক স্বাধিকার ছিল না। সে কারণে বঙ্গবন্ধু এদেশকে স্বাধীন করার ডাক দেন এবং দেশ স্বাধীন হয়। তারপর ৭৫-এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে আবারো স্বৈরশাসকরা ক্ষমতায় এসে দেশকে পাকিস্তানি ঘরানায় নিয়ে যান।

পরে ১৯৯৬-তে আওয়ামী লীগ প্রথম ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার শুরু করেন তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে মামলার রায় হয়, কিন্তু ২০০১ সালে আবার বিএনপি-জামায়াত শক্তি ক্ষমতায় আসলে সে মামলা একচুলও এগোয়নি। পরে আবারো শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিচার শেষ করে এবং শাস্তি নিশ্চিত করে। কিন্তু এখনো স্বাধীনতা বিরোধীরা চক্রান্ত করেই যাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন রেলমন্ত্রী।